Home / ছোট গল্প / সরু পেটে গরু !

সরু পেটে গরু !

কিছুদিন আগে নিউইয়র্কের ইয়ুটিউব প্রাংকস্টার কোবি পারসিনের শখ হয়েছিল কিছু ডলার তার কোটের সাথে লাগিয়ে মানুষের লোভ পরীক্ষা করবে, যেই ভাবা সেই কাজ কিন্তু দুঃখের বিষয় তার ডলারগুলো সব ধনীরা বিভিন্ন সমস্যা দেখিয়ে নিয়ে গেছে
.
শেষে একটা গরীব এক বেলা খাওয়ার জন্য দুই ডলার চেয়ে নিল এর বেশী সে নিতে রাজি হয়নি তবুও পারসিন তাকে ৬০ ডলার অনেক জোর করে পকেটে ডুকিয়ে দিয়েছিলেন
.
দরিদ্রতার কবি দুখী মিয়া কাজী নজরুল ইসলাম যথার্থই বলেছিলেন, ‘হে দারিদ্র, তুমি মোরে করেছ মহান ৷’ সেই ছোট বেলায় যখন গ্রামে ছিলাম চুরি বলতে বুজতাম কোন এক অভাবী লোক সিঁদ কেটে ডুকে ভাত খেয়ে চলে গেছে এমন ৷ একবার তো ভাত খেয়ে চোর সুন্দর করে প্লেট ধুয়ে তা মাচা’র উপর গুচিয়ে রেখেছিল তা দেখে সকালে গৃহস্তের চোখে মুখে হাসির রেখা, চুরিটাই যেন শিল্প !
.
তখন ডাকাতি বলতে বুঝতাম প্রবাসীদের পাঠানো কম্বলটি সিঁদ কেটে গায়েব হয়ে যাওয়া ৷ দাদা কুয়েত থেকে কম্বল পাঠিয়েছে, মাঘ মাসের শীত, চোরের ও শখ হলো একটু কম্বল মুড়ি দিয়ে ঘুমাবে সুতরাং দীর্ঘ এক পরিকল্পনা সাথে টানা কয়েক ঘন্টার চেষ্টায় একটি গর্ত খুড়তে সক্ষম হলো তারপর আস্তে আস্তে লাল গোলাপ ফুল আঁকা কম্বলটি চুরি করে বাসায় নিয়ে গেল ৷ অতঃপর বোকা চোর কর্দমাক্ত কম্বলটি ধুয়ে শুকাতে দিল আর ধরা ও খেল ! এতো সহজ সরল বোকা বোকা চোর ছিল তখন, আসলে অভাবে ওদের স্বভাব নষ্ট হলে ও ওদের বুকে ও মায়া ছিল নৈতিকতা ছিল , গৃহস্তের কষ্ট হবে ভেবে প্লেট ধুয়ে রাখার সেন্স’টি ও ছিল হরদম
.
অনেক কিছু পাল্টে গেছে, যারা আছে সে এখন ভুরি ভুরি চায় ৷ স্মার্ট ফিল্মি এই যুগে মানুষের পেট সরু হয়েছে ঠিকি কিন্তু খাওয়া কমে নি ৷ তার যত পাই তার তত চায় ৷ আমার এক বন্ধু ইয়া মোটা তার ধারণা সে পানি খেলে ও মোটা হয়ে যায় আর সরু পেট যাদের তারা সারাদিন খেলে ও যে লাউ সে কদুই থাকে যাকে স্লিম বলে তাই সে বিখ্যাত এক প্রবাদ আবিষ্কার করেছে, ‘সরু পেটে গরু ৷’
.
আজ পত্রিকা খুললেই দেখি সাদা টাকা কালো করার হীড়িক, কোটি টাকা লাপাওা, টাকার কারণে ছেলের হাতে বাবা/মা খুন, স্বামীর হাতে স্ত্রী চারদিকে টাকার খেলা ৷ যে যেভাবে পারছে সে ভাবে টাকা কামিয়ে নিচ্ছে ! দুই টাকা লাভের জন্য ফরমালিন নামক বিষ খাওয়াচ্ছে, শিশু খাদ্যেও ভেজাল, ঔষুধে ও ভেজাল ! সুখের সংবাদে যে মিষ্টি বিতরণ করা হয় তা ও ভেজালের হাত থেকে রক্ষা পাচ্ছে! অর্থনীতিতে পড়েছিলাম, মানুষের অভাব অসীম সম্পদ সীমিত ৷
.
সেই সীমিত সম্পদ দিয়ে কিভাবে অসীম অভাব পূরণ করা যায় সেটাই লক্ষ্য হওয়া উচিত কিন্তু এমন হয়ে গেছে বেপারটা অসীম অভীব পূরণ করতে সীমত সম্পদ হলে চলবেই না, সম্পদ দিয়ে অভাবকে হার মানাতেই হবে এই যেন দৃঢ় সংকল্প ৷ দিন শেষ ‘টাকা কামানো গেলে কালো টাকা সাদা হয়ে যাবে ৷’ সাদা সাদা আরো সাদা ৷ কারণ ডিটারজেন্ট টাকা দিয়ে সহজেই ক্রয় করা যায় কথায় আছে ‘ টাকা থাকলে বাঘের চোখ ও পাওয়া যায় ৷’ কিন্তু যে হারে বাঘ বিলুপ্ত হচ্ছে সেদিন বেশী দূরে নই, ‘টাকা থাকলে ও বাঘের দেখা মিলবে না ৷’

About Abdur Rob Sharif

Check Also

হাসি কান্না আর ভালবাসা

কবি আজ কবিতার বিষয় খুঁজে পায় না। তাই কবি তার কবিতা লেখা ছেড়ে দিল। কি ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

GET NOTIFICATIONS